পাংশায় কলেজ ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা

0
1550

মাসুদ রেজা শিশির ॥
রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার হাবাসপুর ইউনিয়নের কাচারীপাড়া গ্রামের কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী সিফাত (২১) কে হাতুরি দিয়ে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। নিহত সিফাত কাচারীপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে।
জানাগেছে পূর্ব শ্রুতার জের ধরে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে সিফাতকে হাতুরী দিয়ে মারপিট করা হয়। প্রত্যক্ষদর্শী স্বপন জানান, সিফাত ও আমি একটি মোটর সাইকেল চালিয়ে চরঝিকড়ী থেকে ব্যাড মিন্টন ফাইনাল খেলা দেখে বাড়ী ফেরার পথে কাচারীপাড়া (নিজ গ্রামে) বড় মসজিদ এলাকায় আসা মাত্রই পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আগে থেকেই ওৎ পেতে থাকা একদল সন্ত্রাসী রাস্তার উপর গাছের গুড়ি ফেলে পথ রোধ করে আমাকে (স্বপন) উদ্দ্যোশ্যে করে ইট ছুড়ে মারে, মূলত আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যেই এ হামলা করা হয়। হামলাকারীরা আমার মটর সাইকেল ভাংচুর করে রেখে দিয়েছে। আমি কোনমত পালিয়ে গেলেও আমার সাথে থাকা কলেজ ছাত্র সিফাতকে হাতুরি ও ইট দিয়ে বেধরক মারপিট করে ফেলে রাখে। পরে স্থানীয়রা সিফাতকে প্রথমে পাংশা হাসপাতালে নিয়ে যায়। এ সময় তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
বুধবার রাত ৮ টার দিকে সিফাত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যু বরণ করে। সিফাতের ফটো গ্রাফি করার প্রবল ইচ্ছা ছিল। সে ইন্ডিয়াতে ফটো গ্রাফির উপর পড়া লেখার জন্য ইতি মধ্যে আবেদন করেছিল।
সিফাতের লাশের সঙ্গে অবস্থান করা তার চাচা ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মোঃ জাকির হোসেন বলেন, আমার ভাতিজাকে এলাকার চিহ্নত মাদক ব্যবসায়ী সেলিম, হেলাল, রবিউল, রব্বান, আব্দুল্লাহ, আসাদুল, ইমরান, কালু, আকাশ, নিজাম, মেহেদী সহ ১২/১৫ জন মিলে হাতুরি দিয়ে মারপিট করেছে। বর্তমানে সিফাতের লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রয়েছে। সেখান থেকে ময়নাতদন্তের পর লাশ আনা হবে। এ ঘটনায় পাংশা মডেল থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহাদাত হোসেন বলেন, এখন পর্যন্তু কেউ থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়নি তবে থানা পুলিশ এ বিষয় নিয়ে কাজ করছেন ওই এলাকায়। এ ঘটনায় সিফাতের পরিবারে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here