দৌলতদিয়া ঘাটে ঢাকামূখি যাত্রী ও যানবাহনের ঢল

0
221

মেহেদী হাসান ॥
তিন দিনের সরকারী ছুটি কাটিয়ে কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ । সেই সাথে বাড়তি যোগ হয়েছে আটরশির ওরশ ফেরত যানবাহনের চাপ। যে কারনে গত তিন দিন যাবৎ জানজট থেকেই যাচ্ছে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটে। ঘন্টার পর ঘন্টা ভোগান্তিতে পরছে যাত্রী ও চালকেরা।
বিআইডব্লিটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয় সুত্রে জানাযায়, গত শুক্র, শনি ও রবিবার ছিলো সরকারী ছুটি। এই তিন দিন ছুটি কাটিয়ে আবার কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ। এছাড়াও ফরিদপুরের আটরশিতে ওরশ চলায় বাড়তি যানবাহন যোগ হয়েছে সড়কে। যে কারনে গত তিন দিন যাবৎ যানজট থেকেই যাচ্ছে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটে।
সোমবার বিকেলে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, ঢাকা খুলনা মহা সড়কের দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে গোয়ালন্দ ফিড মিল পর্যন্ত সাড়ে চার কিলোমিটার এলাকায় এক সাড়িতে পারের অপেক্ষায় আটকে আছে অন্তত ৫ শত যাত্রিবাহি বাস। এছাড়াও দৌলতদিয়া ঘাট থেকে বার কিলোমিটার পিছনে গোয়ালন্দ মোড়ে পারের অপেক্ষায় আটকে আছে আরো অন্তত ৪ শত পন্যবাহি ট্রাক।
এ সময় আটরশি ওরশ ফেরত যাত্রি মনিরুজ্জামান বলেন, আটরশির ওরশ বর্তমানে চলমান রয়েছে। ওই ওরশ আগামী ২৬ তারিখ পর্যন্ত ছলবে। এ বছর বিভাগ অনুযায়ী মানুষ বিদায় নিচ্ছে তারপরও ঘাটে যানজট। দীর্ঘ্য ৭ ঘন্টা বসে থাকার পর কোন উপায় না দেখে এখন বাস থেকে নেমে লঞ্চে চলে যাওয়ার জন্য পায়ে হাটা শুরু করেছি।
বাসচালক শেখ মোঃ হিরন বলেন, প্রতিদিন ৭ থেকে ৮ ঘন্টা আটকে থেকে যাত্রীরা অসুস্থ্য হয়ে পরছে। এছারাও অনেক সময় বাস থেকে নেমে পায়ে হেটে লঞ্চে পার হয়েও চলে যাচ্ছে অনেকে। আবার কেউ কেউ তারাতারি যাওয়ার জন্য খারাপ আচরনও করছে।
গোয়ালন্দ মোড়ে আটকে থাকা পন্যবাহি ট্রাকের চালক নজরুল ইসলাম বলেন,এখন নদী পার হতে আটকে থাকতে হচ্ছে কমপক্ষে তিন দিন। একটি ফাকা জায়গায় আটকে রাখা হয়েছে যেখানে নেই কোন হোটেল নেই খাবার ব্যবস্থাসহ শৌচাগারের ব্যবস্থা। কবে নাগাদ ঘাটের নাগাল পাবো তাও অনিশ্চিত। অপর দিকে তারাতারি মাল পৌছে দেওয়ার জন্য ফোনে রাগারাগি করছে।
যাত্রী ও যানবাহনের চাপ বাড়লেও ফেরি বাড়ানোসহ কোন ব্যাবস্থাই গ্রহন করেনি ঘাট কর্তৃপক্ষ। তবে বিআইডব্লিটিসি দৌলতদিয়া ঘাটের সহকারী ব্যাবস্থাপক মোঃ মাহাবুবুর রহমান জানান, এই নৌরুটে পর্যাপ্ত ফেরি রয়েছে। ভোগান্তি কমাতে যাত্রীবাহি বাসগুলোকে অগ্রাধীকার ভিত্তিতে পার করা হচ্ছে।
দৌলতদিয়া পাটুরিয়া নৌরুটে ১৮ টি ফেরির মধ্যে ২ টি বিকল থাকায় বর্তমানে ১৬ টি ফেরি দিয়ে পারাপার করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here