1. jitsolution24@gmail.com : Rajbaribd desk : Rajbaribd desk
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:৩৬ অপরাহ্ন

কাজী কেরামত আলীসহ শপথ নিলেন চার মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২ জানুয়ারি, ২০১৮
  • ১১১৫ Time View

প্রতিমন্ত্রী হিসেবে রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলীসহ শপথ গ্রহন করেছেন। এসময় আরো তিনজন পূর্ণ মন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহন করেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ নতুন মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীদের শপথবাক্য পাঠ করান। সরকার প্রধান শেখ হাসিনাও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

খাদ্যমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, শিল্পমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী এবং নতুন মন্ত্রীদের পরিবারের সদস্যরা অনুষ্ঠানে ছিলেন।

পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, তথ্য-প্রযুক্তিবিদ মোস্তাফা জব্বার ও লক্ষ্মীপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শাহজাহান কামাল।

মন্ত্রিসভার নতুন এই সদস্যদের বঙ্গভবনে নিয়ে যেতে বিকালে সচিবালয় থেকে পাঠানো হয় চারটি গাড়ি। শপথের জন্য বিকাল সাড়ে ৫টার মধ্যে আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলীসহ সবাই বঙ্গভবনে পৌঁছে যান।

শপথ পড়াতে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার একটু আগে সরকার প্রধান শেখ হাসিনাকে সঙ্গে নিয়ে দরবার হলে উপস্থিত হন রাষ্ট্রপ্রধান আবদুল হামিদ। নিয়ম অনুযায়ী প্রথমে তিন মন্ত্রীর শপথ পড়ান রাষ্ট্রপতি। পরে প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ পড়ান আলহাজ¦ কাজী কেরামত আলীকে।

শপথ নেওয়ার পর তিন মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রী টেবিলে বসে শপথবাক্যে স্বাক্ষর করেন। পুরো অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। শপথ নেওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলেন নতুন মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীরা। কাজী কেরামত এসময় দলীয় প্রধান হাসিনাকে কদমবুসি করেন।

এই চারজনকে নিয়ে শেখ হাসিনার মন্ত্রিসভার সদস্য সংখ্যা দাঁড়াল ৫৪। তাদের মধ্যে ৩৩ জন মন্ত্রী, ১৮ জন প্রতিমন্ত্রী এবং দুইজন উপমন্ত্রী।

এছাড়া মন্ত্রীর পদমর্যাদায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূতের দায়িত্বে আছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। মন্ত্রীর পদমর্যাদায় প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা হিসেবে আছেন আরও পাঁচজন।

শপথ নেওয়া মন্ত্রী প্রতিমন্ত্রীরা কে কোন মন্ত্রণালয় পাচ্ছেন তা এখনও জানা যায়নি। তবে বর্তমান মন্ত্রিসভায় ডাক ও টেলিযোগাযোগ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রী নেই। সদ্য প্রয়াত মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী ছায়েদুল হক মারা যাওয়ায় এ পদটিও শূন্য হয়েছে। এই মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন নারায়ণ চন্দ্র চন্দ।

তবে সচিবালয়সহ বিভিন্ন সূত্র বলছে, মোস্তাফা জব্বারকে ডাক ও টেলিযোগাযোগ, এ কে এম শাহজাহান কামাল সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় পেতে পারেন। আর নারায়ণ চন্দ্র চন্দকে তার মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী করা হতে পারেন। এছাড়া রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলীকে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হতে পারে বলে গুঞ্জন ছড়ালেও মঙ্গলবার রাতে বঙ্গভবন থেকে বেরিয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, তাকে শিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design by: JIT Solution