1. jitsolution24@gmail.com : Rajbaribd desk : Rajbaribd desk
বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:১৪ পূর্বাহ্ন

দৌলতদিয়ায় ছিনতাইকারী কবলে শিক্ষার্থী

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৩০ নভেম্বর, ২০১৭
  • ১২০২ Time View

গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় বৃহস্পতিবার সকালে সিরিয়ালে আটকে থাকা দুরপাল্লার বাসযাত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুক শিক্ষার্থী ছিনতাইকারীর কবলে পরে মূল্যবান মোবাইল ফোন সেট হারিয়েছেন। এসময় ছিনতাইকারীদের ধাওয়া করতে গিয়ে ওই শিক্ষার্থী আহত হন।

ঢাকা তেজগাঁও এলাকার শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ব বিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে যাওয়া ওই শিক্ষার্থীর নাম এসএম আতিবুর রহমান সানি। সে সাতক্ষীরা শহরের আমতলা মহল্লার মো. শাহজাহান আলীর ছেলে।

গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে আসা আহত ওই শিক্ষার্থী রাজবাড়ীবিডিকে জানান, বৃহস্পতিবার ভোরে সাতক্ষীরা থেকে একেট্রাভেলসের একটি কোচে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়ে ভোর সাড়ে ৬টার দিকে দৌলতদিয়া ঘাটে আসে। এসময় কুয়াশায় ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় তাদের বাসটি মহাসড়কের বাংলাদেশ হ্যাচারীজের সামনে সিরিয়ালে আটকা পড়ে। আটকে থাকা বাসের জানালার পাশে সিটে বসে তিনি ফোনে কথা বলছিলেন। হঠাৎ করে দুই ছিনতাইকারী ছোঁ মেরে তার হাত থেকে তার দামী মোবাইল ফোন সেটটি নিয়ে যায়। তিনি ছিনতাইকারীদের পেছনে দৌড়াতে থাকলে তার একটি রিক্সায় উঠে এবং আরেটি রিক্সা দিয়ে তার গাতি রোধের চেষ্টা করে। এসময় তিনি পড়ে গিয়ে মারাত্মক জখম হন।

তিনি আরো অভিযোগ করেন, ঘটনার সময় তিনি কর্তব্যরত পুলিশের সহযোগিতা চাইলে পুলিশ সাফ জানিয়ে দেয়, কোন ঝামেলা করবেন না, সোজা চলে যান। এরপর তার রক্তপাত দেখে একেট্রাভেসের দৌলতদিয়া ঘাট সুপারভাইজার শহিদুল ইসলাম তাকে উদ্ধার করে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন।

স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রের সাথে কথা বলে জানা গেছে, কুয়াশায় দীর্ঘ সময় ফেরি বন্ধ থাকা ও অন্যান্য কারণে প্রায়ই রাতের বেলায় দৌলতদিয়া ঘাটে শত শত যানবাহন আটকা পড়ে থাকে। আটকে পড়া যানবাহনের চালক, সহযোগী কিংবা যাত্রী জরুরী প্রয়োজনে গাড়ি থেকে বাইরে আসলেই ওৎ পেতে থাকা ছিনতাইকারীদের কবলে পড়ে সর্বস্ব খোয়ান। এছাড়া এ চক্রের সদস্যরা গাড়ির মধ্যে মোবাইল ফোনে কথা বলার সময়ও ছিনিয়ে নিচ্ছে মূল্যবান ফোনসেট। টহল পুলিশ থাকলেও তাদের গতিবিধির উপর নজর রেখেই চট জলদি তারা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটাচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্থরা দুর দুরান্তের হওয়ায় বেশীরভাগ ক্ষেত্রে কোথাও কোন অভিযোগ না দিয়ে গন্তব্যে চলে যান।

এ প্রসঙ্গে পুলিশের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (টিআই) মৃদুল কুমারের কাছে জানতে চাইলে তিনি রাজবাড়ীবিডিকে বলেন, ছিনতাইয়ের শিকার ব্যাক্তি পুলিশের কাছে সহযোগিতা চেয়ে না পাওয়ার কথা নয়। তাদের কাজই মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। তবে দায়িত্বে তো অনেক পুলিশ থাকে কার কাছ থেকে সহযোগিতা পায়নি বা এ ধরনের আচরন করেছে সেটা জানাতে পারলে এ বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া যেত।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design by: JIT Solution