1. jitsolution24@gmail.com : Rajbaribd desk : Rajbaribd desk
বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১০:১২ অপরাহ্ন

পাংশায় নাট্য উৎসবের সমাপনি দিনে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানকে সম্মাননা

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০১৭
  • ১০৯৬ Time View

মাসুদ রেজা শিশির ॥
রাজবাড়ীর পাংশা পৌরসভা চত্ত্বরে মহান বিজয় দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে ৫ দিন ব্যাপী অনুষ্ঠিত নাট্যালোকের বার্ষিক নাট্য উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান-সদস্যদের সম্মাননা ও পাংশার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দরিদ্র ও মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টায় নাট্যালোকের সভাপতি ও জেলা পরিষদ সদস্য উত্তম কুমার কুন্ডু’র সভাপতিত্বে অধ্যক্ষ বিকাশ চন্দ্র বসুর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজবাড়ী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আব্দুল জব্বার।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এয়াকুব আলী চৌধুরী বিদ্যাপীঠের সাধারণ সম্পাদক শিক্ষাবিদ অধ্যাপক আব্দুল ওয়াহাব, বৃহত্তর ফরিদপুর জেলার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মহসিন উদ্দিন বতু, পৌর মেয়র আব্দুল আল মাসুদ, জেলা পরিষদ সদস্য মোঃ হাবিবুর রহমান, মোঃ মিজানুর রহমান মজনু, বেগম কামরুন্নাহার, ডলি রানী দেবদাস প্রমুখ।

এসময় নাট্যালোকের সভাপতি রাজবাড়ী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আব্দুল জব্বার ও জেলা পরিষদ সদস্যগণকে উত্তরীয় পড়িয়ে এবং ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে বরণ করে নেন।

পরে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও সদস্যগণকে বিজয় সম্মাননা প্রদান করা হয়। এসময় জেলা পরিষদের অর্থায়নে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৪ জন দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মধ্যে বৃত্তি প্রদান করা হয়।

মহান বিজয় দিবস-২০১৭ উদ্যাপন উপলক্ষে পাংশা উপজেলার ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক সংগঠন নাট্যালোকের ৫ দিন ব্যাপী নাট্য উৎসবে গুণীজন ও মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা, বিশেষ সম্মাননা, নাট্যালোকের শিল্পীবৃন্দের সম্মাননা, কবি-সাহিত্যিকদের সম্মাননা, টিভি অভিনেতাদের বিজয় সম্মাননা, পুলিশ কর্মকর্তাদের সম্মাননা, শিল্পকলা একাডেমির শিক্ষকদের সম্মাননা, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও সদস্যগণকে সম্মাননা এবং ছাত্র বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে।

ইতিমধ্যে নাট্যালোক এসকল কর্মসূচি গ্রহণ করায় পাংশার বিভিন্ন মহল তাদেরকে অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানিয়েছেন।
সমাপনী দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আব্দুল জব্বার বলেন, নাটক মানুষকে সচেতন করে, অসামাজিক কাজ থেকে দূরে রাখে। তিনি যুব সমাজের উদ্দেশ্যে বলেন, নেশাজাত দ্রব্য সেবনে মানুষ অশ্লীল ও অসামাজিক কাজে জড়িয়ে পড়ে। তাই যুবসমাজকে সুন্দর সমাজ গঠনে নেশাজাত দ্রব্য পরিহার করতে হবে।

পরিশেষে নাট্যালোক প্রতিবছরই এমন আয়োজন করবে জানিয়ে নাট্যালোককে সাধুবাদ ও উপস্থিত সকল শ্রেণীপেশার মানুষকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

নাট্যালোকের সভাপতি ও জেলা পরিষদ সদস্য উত্তম কুমার কুন্ডু জানান, নাট্যালোক ৫দিন যে নাট্য উৎসব আয়োজন করেছিল তা পাংশার সকল শ্রেণীপেশার মানুষের উপস্থিতিতে সফল ও সার্থক হয়েছে। ভবিষ্যতেও নাট্যালোক এসকল সামাজিক কর্মসূচি গ্রহণের মাধ্যমে সুন্দর সমাজ ও জাতি গঠনে অবদান রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সেই সাথে নাট্যালোক যাতে প্রতিবছরই সুন্দর উৎসব পালন করতে পারে সেজন্য সকলের সহযোগিতা ও উপস্থিতি কামনা করে ৫দিন ব্যাপী নাট্য উৎসবের সমাপ্তি ঘোষণা করেন। এর আগে রাত সাড়ে ৯ টায় প্রখ্যাত নাট্যকার রঞ্জন দেবনাথ রচিত নাটক ‘বধুর চিতা জ্বলছে’ মঞ্চায়িত হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design by: JIT Solution