1. jitsolution24@gmail.com : Rajbaribd desk : Rajbaribd desk
মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০২:১২ পূর্বাহ্ন
Title :
গোয়ালন্দের পূজামন্ডপ পরিদর্শন ও উপহার সামগ্রী দিলেন পুলিশ সুপার পাংশায় ডিসি-এসপি’র মন্দির পরিদর্শন সহজ পাঠ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের গোয়ালন্দে ওসি’র ফুলেল শুভেচ্ছা গোয়ালন্দে রেলওয়ে পুলিশ সুপারের দূর্গা মন্দির পরিদর্শন গোয়ালন্দে পিছিয়ে পড়া শিশুদের অংশগ্রহনে প্রীতি ফুটবল খেলার আয়োজন রাজকীয় বিদায় দিলেন পাংশা থানার কনস্টেবলকে দৌলতদিয়া ঘাট আধুনীকায়ন প্রকল্প ॥ হয়নি জমি অধিগ্রহন, তবুও নভেম্বরে কাজ শুরুর আশা কালুখালীতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন গোয়ালন্দে ঘরের বেড়ায় ঢেড়স চাষ, মিটাচ্ছে পারিবারিক চাহিদা রাজবাড়ীতে পাট কাঠি বিক্রি করেও লাভবান চাষিরা

বালিয়াকান্দিতে সমাজসেবার কর্মচারীর বিরুদ্ধে ভাতার টাকা আতœসাতের অভিযোগ

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৭
  • ৯০৫ Time View

বালিয়াকান্দিতে বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, স্বামী পরিত্যক্তা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা প্রদানে নানা অনিয়নের গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের কারিগরি প্রশিক্ষকের বিরুদ্ধে ভাতা উত্তোলন করে হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার দুপুরে ৮জন ভাতা ভোগী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুম রেজার নিকট মৌখিক ও লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের বহরপুর গ্রামের নিদু শেখের ছেলে আকাই শেখের ৪ হাজার ৫শত টাকার পরিবর্তে ৩হাজার ৫শত টাকা, মেছের শেখের ছেলে সেকেন আলী শেখের ১৩ হাজার ৫শত টাকার পরিবর্তে ১০ হাজার ৫শত টাকা, আইনুদ্দিন শেখের ছেলে নায়েব আলী শেখের ১১হাজার ১শত টাকার পরিবর্তে ১০ হাজার টাকা, হাফেজ সরদারের ছেলে হেকমত আলী সরদারের ৪হাজার ৫শত টাকার পরিবর্তে ৪হাজার টাকা, জয়নাল শেখের ছেলে আজাহার শেখের ১১হাজার ১শত টাকার পরিবর্তে ৮হাজার ১শত টাকা, খুদু মন্ডলের ছেলে জিন্দার মন্ডলের ১২হাজার ৩শত টাকার পরিবর্তে ৭হাজার টাকা, আকবর মন্ডলের স্ত্রী আমেনা বেগমের ১৫হাজার ৯শত টাকার পরিবর্তে ৩হাজার ৫শত টাকা এবং শহীদ মন্ডলের স্ত্রী জোহরা বেগমের ১৪ হাজার ৭শত টাকার পরিবর্তে ৪ হাজার টাকা প্রদান করা হয়েছে।

এ সকল ভাতাভোগীদের চেক প্রদান না করে গত ১৮ ডিসেম্বর বহরপুর সোনালী ব্যাংক শাখার কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করে উপজেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের কারিগরি প্রশিক্ষক হাসিনা বেগম তার ইচ্ছা মতো টাকা প্রদান করেছেন। কেউ প্রতিবাদ করলে তার ভাতা বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি ও লাঞ্ছিত করেছেন।

বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুম রেজার নিকট উত্তোলনকৃত বই নিয়ে হাজির হন ৮জন ভাতাভোগী। মৌখিক অভিযোগ করলে তাদেরকে লিখিত অভিযোগ দেওয়ার কথা বলেন। পরে তারা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগকারী আজাহার শেখ, জিন্দার মন্ডল, সেকেন শেখ, নায়েব আলী শেখ জানান, হাসিনা বেগমের নিকট তাদের বই ছিল। বহরপুর সোনালী ব্যাংক থেকে টাকা তুলে তার ইচ্ছামতো অন্য আরেকটি লোকের সহায়তায় বই সহ টাকা আমাদের হাতে তুলে দিয়েছে। টাকা কম দেওয়ার কারণে ধাক্কাধাক্কির ঘটনাও ঘটে। আমরা সুষ্ঠু তদন্ত পুর্বক বিচার দাবী করছি।

এ ব্যাপারে উপজেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের কারিগরি প্রশিক্ষক হাসিনা বেগমকে অফিসে না পেয়ে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি যার যার বই তাদেরকে বুঝে দিয়েছি। ব্যাংক থেকে তারাই টাকা উত্তোলন করে নিয়েছে। আমার টাকা উত্তোলন করে দেওয়ার কোন নিয়মই নেই। শিরিনা মেম্বার লোকজন দিয়ে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছে।

উপজেলা সমাজসেবা অফিসার অজয় কুমার হালদার জানান, আমি বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দোষী হলে ব্যবস্থা গ্রহন করবো। তবে কয়েকজন মেম্বার তালিকা না পেয়ে হাসিনা বেগমকে নাজেহাল করার হুমকিও দিয়েছিল বলে আমাকে জানিয়েছেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুম রেজা জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত পুর্বক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design by: JIT Solution