পাটুরিয়ায় পদ্মা পাড়েই হচ্ছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম

0
624

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল বলেছেন, মানিকগঞ্জের পাটুরিয়ায় পদ্মা পাড়েই হবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম। এটি প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার প্রকল্পের তালিকায় রয়েছে। চলতি অর্থবছরেই এর নির্মাণ কাজ শুরু হতে পারে। এছাড়া এক সপ্তাহের মধ্যে এর সমীক্ষা কাজের কার্যাদেশ দেওয়া হবে।
শনিবার বিকেলে মানিকগঞ্জে পাটুরিয়া ঘাটে পদ্মা পাড়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের স্থান পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।
কবে নাগাদ শুরু হবে স্টেডিয়ামের কাজ? ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ হাসান রাসেল বলেছেন, ‘অনেক ধরনের সমীক্ষা চালানো হয়। এখানে সে ধরনের স্টেডিয়াম করতে গেলে মাটিটা কার্টেল করবে কিনা বা কতটা নিচে নিতে হবে, সকল কিছু পরীক্ষা করেই আসলে এটা করতে হয়। সাধারণত এটার জন্য ৩-৬ মাস সময় লাগতে পারে। সেটা হলে আমার মনে হয় যে স্টেডিয়ামের কাজ শুরুর প্রক্রিয়া শুরু হবে।’
আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এই ফিজিক্যাল স্টাডির কাজ শুরু হবে। এর জন্য ৪ কোটি টাকা বাজেটও করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জাহিদ আহসান রাসেল। ফিজিক্যাল স্টাডি শেষে এই অর্থবছরেই নির্মাণ কাজ শুরু হবে। তিনি আরও বলেন, ‘যেহেতু প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার প্রকল্প, প্রধানমন্ত্রী নিজে এটা ঘোষণা দিয়েছেন। এই অর্থ বছরে আমরা চেষ্টা করব স্টেডিয়ামটির কাজ শুরু করা যায়।’
দুই বছর আগে থেকেই এই প্রকল্প নিয়ে আলোচনা হচ্ছিল। মানিকগঞ্জে সফরে গিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেই সে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এই প্রকল্পের উদ্যোক্তা অবশ্য দুর্জয়। তিনি এই অঞ্চলের সাংসদও। দুর্জয় বলেন, ‘একজন ক্রিকেট খেলোয়াড় হিসেবে এবং এই এলাকার সংসদ সদস্য হিসেবে অবশ্যই আমি আনন্দিত। উনারা এসেছেন এবং এই স্টেডিয়ামের কার্যক্রম আমরা শুরু করতে যাচ্ছি।’
পদ্মার পাড়ে আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম হলেও সেই মানের আবাসন ব্যবস্থা না থাকা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে মন্ত্রী বলেন, ‘আসলে ঢাকার বাইরে বিভিন্ন জেলাগুলোতে যখন স্থাপনা করতে যাই সেখানে আবাসনের জন্য সেই স্থাপনাগুলো অকেজো হয়ে থাকে। যেটা আমরা গোপালগঞ্জে দেখছি। সেই কারণে এখানে স্টেডিয়ামের পাশাপাশি ডরমেটরি নির্মাণ করা প্রয়োজন। এখানে নির্মাণ করা হবে, না হলে খেলোয়াড়েরা কোথায় থাকবে। সেই হিসেবে স্টেডিয়ামের পাশাপাশি একটা ডরমেটরিও নির্মাণ করতে চাই।’
সবেমাত্র স্টেডিয়ামের জায়গা নির্বাচিত ও পরিদর্শন হয়েছে। এখনো অনেক পথ বাকি। কিন্তু স্টেডিয়ামটি কী নামে বা কার নামে হবে? ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামেই হবে স্টেডিয়াম, ‘প্রধানমন্ত্রী হয়তো ঠিক করে দেবেন। কিন্তু আমরা চাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নামে স্টেডিয়ামটি হোক। এটা নাইমুর রহমান দুর্জয় সাহেব এবং এলাকাবাসির পক্ষ থেকে দাবি। কিন্তু এটা পুরোটাই নির্ভর করবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ওপর।
প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে স্টেডিয়ামের জায়গা পরদির্শনে আরও এসেছিলেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি আবদুল্লাহ আল ইসলাম, ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক সংসদ সদস্য নাঈমুর রহমান দুর্জয় ও সংসদ সদস্য জাকিয়া তাবাসুম, মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ, মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা গোলাম মহীউদ্দীন, জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ, পুলিশ সুপার মুহাম্মদ গোলাম আজাদ খান প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here