1. jitsolution24@gmail.com : Rajbaribd desk : Rajbaribd desk
মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৫:১৪ অপরাহ্ন
Title :
দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর সুবিধা বঞ্চিত মা ও শিশুদের স্বাস্থ্যসেবায় দিনব্যাপী মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত পবিত্র আশুরা উপলক্ষে দৌলতদিয়া আন্জুমান-ই-কাদেরীয়া তরিকার শোক মিছিল রাজবাড়ীতে সার ও তেলের মূল্যবৃদ্ধি প্রত্যাহারের দাবিতে সিপিবির বিক্ষোভ রাজবাড়ীতে আশুরা উপলক্ষে তাজিয়া মিছিল গোয়ালন্দে বঙ্গমাতা’র জন্মদিন পালিত শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব ছিলেন শেখ মুজিবের অনুপ্রেণার উৎস গোয়ালন্দে ৪টি ড্রেজার মেশিন ও ৫কি.মি. পাইপ ধ্বংস গোয়ালন্দে চার মাস পর অপহৃত কিশোরী উদ্ধার, গ্রেপ্তার-১ পাংশায় ৩ ব্যবসায়ীকে জরিমানা দৌলতদিয়ায় গণস্বাস্থ্য প্রশিক্ষণ বিভাগের আয়োজনে রিফ্রেসার প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

‘নবম শ্রেণিতে বাধ্যতামূলক ট্রেডকোর্স চালু করতে চাই’ সাক্ষাৎকারে শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ৬ জানুয়ারি, ২০১৮
  • ১৩৫১ Time View

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নবনিযুক্ত প্রতিমন্ত্রী ও রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী বলেছেন, দায়িত্ব গ্রহণের পর কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষাব্যবস্থার সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে সমাধানের উদ্যোগ নেওয়াই হবে তার প্রথম লক্ষ্য। শপথ নেওয়ার দু’দিন পর গতকাল শুক্রবার দেওয়া সাক্ষাৎকারে নিজের মিশন ও ভিশন নিয়ে আলাপকালে এ কথা জানান শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত এই প্রতিমন্ত্রী।

 




রাজবাড়ী-১ (সদর-গোয়ালন্দ) আসন থেকে চারবার এমপি নির্বাচিত হওয়া কাজী কেরামত আলী সাক্ষাৎকারে আরও বলেন, জীবনে যখন যে দায়িত্ব পেয়েছেন, তা তিনি শতভাগ আন্তরিকতার সঙ্গে পালন করেছেন। নতুন পাওয়া দায়িত্ব পালনেও এর ব্যত্যয় ঘটবে না। সরকারের শেষ সময়ে এসে পাওয়া দায়িত্ব অল্প সময়ে স্বল্প বাজেটে সম্পন্ন করার সর্বোচ্চ চেষ্টা করবেন বলেও মন্তব্য করেন নবনিযুক্ত এই প্রতিমন্ত্রী।

গতকাল সকালে প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলীর গুলশানের বাসভবনে গিয়ে দেখা গেল, তাকে শুভেচ্ছা জানাতে আসা নেতাকর্মীর ভিড়। তার নির্বাচনী এলাকা থেকে এসেছেন আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা। ঢাকা উত্তর যুব মহিলা লীগের নেত্রীদের পাশাপাশি রাজধানীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরাও এসেছিলেন শিক্ষা প্রতিমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানাতে।

শুভেচ্ছা বিনিময় পর্ব শেষে প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী জানান, আজ (শনিবার) রাজবাড়ীতে নিজের নির্বাচনী এলাকায় যাবেন। রোববার ঢাকায় ফিরে দুপুর ১২টায় মন্ত্রণালয়ে গিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন এবং কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরিচিত হবেন।

সাক্ষাৎকারের শুরুতেই তিনি বলেন, শিক্ষার বিস্তার ও মানোন্নয়নই মন্ত্রণালয়ের মূল কাজ। দেশের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষাব্যবস্থা দীর্ঘকাল অবহেলিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমলে কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষার উন্নয়নের লক্ষ্যে পৃথক বিভাগ খোলা হয়েছে। এই লক্ষ্য বাস্তবায়নে সর্বোচ্চ সচেষ্ট থাকবেন বলেও অঙ্গীকার জানান প্রতিমন্ত্রী কেরামত আলী।

নিজের পরিকল্পনা প্রসঙ্গে প্রতিমন্ত্রী বলেন, কারিগরি শিক্ষাকে পৃথক একটি ধারায় না রেখে সাধারণ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতেও অন্তত একটি বৃত্তি কোর্স চালুর কথা ভাবছেন তিনি। নবম শ্রেণি থেকে বাধ্যতামূলকভাবে অন্তত একটি ভোকেশনাল ট্রেড কোর্স চালু করা গেলে ভবিষ্যতে বেকার সমস্যা দূরীকরণে তা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। নিজের এই পরিকল্পনা নিয়ে এর আগেও শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ এবং সংসদেও কথা বলেছেন জানিয়ে কাজী কেরামত আলী বলেন, এবার এ পরিকল্পনা নিয়ে নিজেই কাজ করবেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করে পরামর্শও নেবেন। তবে নিজের দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে ‘স্বল্প সময়’ ও ‘স্বল্প বাজেট’কে দেখছেন নবনিযুক্ত এই প্রতিমন্ত্রী। তিনি বলেন, আগামী ডিসেম্বর অথবা জানুয়ারিতে জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এ ছাড়া কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের বাজেটও ততটা নয়। এর পরও অল্প সময়ে স্বল্প বাজেটে নিজের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের চেষ্টা করবেন বলে মন্তব্য করেন প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত।

কারিগরি শিক্ষার বর্তমান প্রেক্ষাপট তুলে ধরে তিনি বলেন, যদিও জেলায় জেলায় টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ আছে, উপজেলা পর্যায়েও করার উদ্যোগ আছে, তবে এসব প্রতিষ্ঠানে পুরোটা কভার করা যাচ্ছে না। তাই সাধারণ ধারার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষা চালু করতে হবে। এক্ষেত্রে হয়তো আসবাবপত্র ও সরঞ্জাম লাগবে। সবই দিতে হবে পর্যায়ক্রমে। নইলে বিশ্বের সঙ্গে তাল মেলানো যাবে না। হাতে-কলমের শিক্ষা এখন দরকার। চীন-জাপানে তিনি দেখেছেন, ঘরে ঘরে কুটির শিল্পের মতো কারিগরি ও প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে ক্ষুদ্র শিল্পায়ন করা হচ্ছে। সারা বিশ্বে ছড়িয়ে যাচ্ছে সেসব পণ্য। আমেরিকা, কানাডা, নিউজিল্যান্ডের মতো দেশে তিনি দেখেছেন সেই পণ্য ব্যবহার করতে। এদেশের কারিগরি শিক্ষাকে চীনের পর্যায়ে নিতে হবে। মাদ্রাসা শিক্ষাব্যবস্থা প্রসঙ্গে কাজী কেরামত আলী বলেন, মাদ্রাসা শিক্ষার আধুনিকায়নের উদ্যোগ নেবেন। কেউ যেন আর মাদ্রাসা শিক্ষাকে বাঁকা চোখে না দেখে। এই শিক্ষাকেও ডিজিটালাইজ করতে হবে।

সাম্প্রতিককালে বিভিন্ন পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় সমালোচনার মুখে থাকা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নতুন এই প্রতিমন্ত্রীর দাবি, সরকারকে বিব্রত করতে একটি কুচক্রী মহল পরিকল্পিতভাবে প্রশ্নপত্র ফাঁস করছে। টানা ২৪ বছর ধরে রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালনকারী কাজী কেরামত আরও বলেন, মন্ত্রণালয়ে যোগ দিয়ে মন্ত্রী, সচিবসহ সবাইকে সঙ্গে নিয়ে কুচক্রী মহলকে খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়ারও পদক্ষেপ নেবেন। (সূত্র : দৈনিক সমকাল)

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design by: JIT Solution