1. jitsolution24@gmail.com : Rajbaribd desk : Rajbaribd desk
সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২, ১০:৩৩ অপরাহ্ন
Title :
গোয়ালন্দ উপজেলা চেয়ারম্যানের উদ্যোগে ২ কিলোমিটার রাস্তা নির্মান কাজ শুরু গোয়ালন্দে দুই দিনব্যাপী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন ফের নারায়ণগঞ্জের মেয়র হলেন রাজবাড়ীর পুত্রবধু আইভী ১৬ দিন পর গোয়ালন্দে টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে বই বিতরন শুরু দৌলতদিয়ায় নিখোঁজের ৩ মাস পর মামালা ॥ কথিত স্বামীসহ আসামি ৩ জন প্রবাসীর স্ত্রীকে নিয়ে উধাও আইনজীবী ॥ আদালতে মামলায় গ্রেপ্তারী পরোয়ানা বালিয়াকান্দিতে বাবার বিরুদ্ধে মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ বালিয়াকান্দিতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু রাজবাড়ীতে নবাগত জেলা প্রশাসকের গনমাধ্যমকর্মীদের সাথে মতবিনিময় প্রধান বিচারপতির সাথে রাজবাড়ীর আইনজীবীদের সৌজন্য সাক্ষাৎ

রাজবাড়ীতে কলেজ পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক শামীমা, শ্রেষ্ঠ স্কুল শিক্ষার্থী কুইন

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
  • ৮৬১ Time View

রাজবাড়ীতে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক ও শিক্ষার্থী নির্বাচিত হয়েছেন মা ও মেয়ে। জেলা পর্যায়ে তাঁরা শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করে। জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে গত ২৪ জানুয়ারী শিক্ষা অধিদপ্তরের উদ্যোগে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

কলেজ পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শ্রেণি শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন ডা. আবুল হোসেন কলেজের সহকারী অধ্যাপক ও দর্শন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান শামীমা আক্তার মুনমুন। শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থী তারই মেয়ে রাজবাড়ী সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী কুইন।

জেলা শিক্ষা অফিস সুত্রে জানা যায়, বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। কলেজ, মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিভাগে এসব পুরস্কার দেওয়া হয়। প্রতিযোগিতায় প্রথমে উপজেলা পর্যায়ে অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা পর্যায় থেকে পর্যায়ক্রমে জাতীয় পর্যায়ে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

শামীমা আক্তার মুনমুন গোয়ালন্দ শহীদ স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে প্রথম বিভাগ পেয়ে এসএসসি ও ফরিদপুরের সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ থেকে প্রথম শ্রেণিতে এইচএসসি পরীক্ষা পাশ করেন। ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগ থেকে বিএ (সম্মান) ও এমএ ডিগ্রী অর্জন করেন। ২০০৯ সালে জাতীয় বিশ^বিদ্যালয়ের অধিনে এলএলবি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। আমেরিকা, স্পেন, কানাডা, ভারত, ও নেপালে ভ্রমণের অভিজ্ঞতা রয়েছে। সরকারের জয়িতা অন্বেষনে রাজবাড়ী সদর উপজেলায় শিক্ষা ও চাকুরী ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী নারী নির্বাচিত হন। রেডক্রিসেন্টহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সঙ্গে জড়িত রয়েছেন তিনি। জাতীয় ও জেলা পর্যায়ে সরকারী ও বেসরকারী বিভিন্ন অনুষ্ঠানে সঞ্চালনা ও উপস্থাপনা করেন। তিনি যমজ কন্যা এরিন ও কুইনের জননী। তিনি বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত। এরিন ও কুইন রাজবাড়ী সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

শামীমা আক্তার মুনমুনের মা শরীফা বেগম অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক। তিনিও সমাজ উন্নয়নে জেলা পর্যায়ে সেরা জয়িতা হওয়ার গৌরব অর্জণ করেছেন। সাহিত্য চর্চার সঙ্গে জড়িত রয়েছেন তিনিও।

বাবা মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আবদুল জব্বার রাজনীতিবিদ। জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি। ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতির সঙ্গে জড়িত থেকে রাজবাড়ী সরকারী কলেজ সংসদের জিএস এবং ভিপি নির্বাচিত হন। বর্তমানে দায়িত্ব পালন করছেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি রাজবাড়ী জেলা ইউনিটের চেয়ারম্যান। বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা কর্মজীবী কল্যাণ সংস্থার (কেকেএস) নির্বাহী পরিচালক। তিনি প্রতিষ্ঠা করেছেন বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

কুইন রাজবাড়ী ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল (ইংরেজি মাধ্যম) থেকে জিপিএ ৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়। পঞ্চম শ্রেণির বৃত্তি পরীক্ষায় ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পায়। এরপর রাজবাড়ী সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি হয়। ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম শ্রেণিতে কুইন প্রথম স্থান অর্জন করে। নির্বাচিত ক্লাস ক্যাপ্টেন হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে। স্কুল ক্যাবিনেট নির্বাচনে অংশ নিয়ে ধারাবাহিক ভাবে দ্ইুবার কুইন সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়। যমজ বোনের সঙ্গে তাঁর একটি ছড়ার বই ও শিল্পকলা একাডেমীর তত্ত্বাবধানে শিশুদের গানের সিডিতে গান প্রকাশিত হয়েছে।

শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হওয়ার অনুভূতি জানিয়ে শামীমা আক্তার মুনমুন বলেন, মা ও মেয়ে জেলায় শ্রেষ্ঠ শিক্ষক ও শিক্ষার্থী নির্বাচিত হওয়া অভূতপূর্ব আনন্দের বিষয়। আমার মা-বাবা দুইজনই শিক্ষকতা সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। মুক্তিযোদ্ধা বাবা সমাজ সেবার সঙ্গে যুক্ত। নিজের ওপর অর্পিত দায়িত্ব মনোযোগ দিয়ে সবসময় পালনের চেষ্টা করেছি। সন্তানদেরও মানবিক মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা করছি। এই স্বীকৃতির ফলে দায়িত্ববোধ আরো বেড়ে গেলো।

গান, আবৃত্তি, ছবি আঁকা, কবিতা লেখায় পারদর্শী কুইন। শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থী হওয়ার অনুভূতি জানতে চাইলে হাসিমূখে কুইনের উত্তর, ‘খুউব ভালো লাগছে। বড় হয়ে ভালো কিছু করতে চাই। ভালো মানুষ হতে চাই। শিশুদের জন্য কাজ করতে চাই।’
জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সৈয়দ সিদ্দিকুর রহমান বলেন, আনুষ্ঠানিক ভাবে বিজয়ীদের সনদপত্র, ক্রেষ্ট ও পুরস্কার প্রদানের মাধ্যমে সম্মাননা জানানো হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design by: JIT Solution