1. jitsolution24@gmail.com : Rajbaribd desk : Rajbaribd desk
সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২, ১০:২৭ পূর্বাহ্ন

১৮ দিনেও চালু হয়নি জৌকুড়া-নাজিরগঞ্জ রুটে ফেরি চলাচল

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
  • ৩৪৮ Time View

নদী পথে রাজবাড়ীর সাথে পাবনার যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে জৌকুড়া-নাজিরগঞ্জ নৌরুট । এরুট দিয়ে প্রতিদিন বিআরটিসি বাসসহ নিদ্দিষ্ট কিছু যানবাহন নদী পারাপার হলেও দীর্ঘদিন ১৮ দিন ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় ভোগান্তি পড়েছেন যানবাহনে পারপার হওয়া যাত্রীরা।
১৮ জানুয়ারী নব্যতা সংকটের কারণে বন্ধ হওয়া রাজবাড়ী ধাওয়াপাড়ার জৌকুড়া ও পাবনার নাজিরগঞ্জের নৌরুটে ১৮ দিনেও চালু হয় নি ফেরি চলাচল।
রাজবাড়ী সড়ক ও জনপথ বিভাগের অধীনে পরিচালিত হয় ধাওয়াপাড়ার জৌকুড়া ফেরি ঘাট। নব্যতা সংকটের কারণে এ রুটে চলতি বছরের ১৮ জানুয়ারী থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ রেখে নদীর নব্যতা ফিরিয়ে এনে ফেরি চলাচলের উপযোগী করতে ড্রেজিং কার্যক্রম চালাচ্ছে সড়ক বিভাগ এবং সেই সাথে নির্মান করা হচ্ছে ঘাটটির সংযোগ সড়ক।
এদিকে দীর্ঘদিন ফেরি চলাচল বন্ধ ও চলমান কাজের বিবরনী হিসেবে কয়েক দফায় গণ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছেন রাজবাড়ী সড়ক ও জনপথ বিভাগ। সবশেষ ৩১ জানুয়ারী রাজবাড়ী সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী স্বাক্ষরিত একটি গণ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন। এতে এরুটে চলাচলকারীদের সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে আগামী ৮ই ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত চলমান কাজ বাড়ানো হয়েছে বলে জানানো হয়।
জানাগেছে, এরুটে দুইটি ছোট ফেরি ও ২টি লঞ্চ চলাচল করে এবং লঞ্চ চলাচলের পাশাপাশি যাত্রী ব্যবহৃত হয় ইঞ্জিন চালিত ট্রলার। দীর্ঘদিন ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় অনেকে বিকল্প হিসেবে অনেকটা ঝুকি নিয়ে নৌকার মত লঞ্চ ও ট্রলারে পারাপার হচ্ছে। তবে সমস্যায় পড়েছেন মালামাল নিয়ে পরিবহনের যাত্রীরা।
যাত্রীরা জানান, ফেরি চলাচল বন্ধ থাকার কারণে তারা তাদের পরিবার পরিজন ও মালামাল নিয়ে নৌকার মত লঞ্চে পারাপার হচ্ছেন এবং যে সময লঞ্চ থাকে না সে সময় ট্রলারে পারাপার হন। এতে অনেক সমস্যা হচ্ছে। আগে বাসে করেই তারা নদী পার হতেন। কর্তৃপক্ষের অবহেলার কারণেই দীর্ঘদিন এরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। নদীতে পানি কমার আগেই ড্রেজিং এর ব্যবস্থা করলে কিন্তু ফেরি চলাচল বন্ধ হত না। যখন পানি একেবারেই কমে গেছে তখন ফেরি চলাচল বন্ধ ঘোষনা করে কাজ শুরু করেছে। এতে করে তাদের মত যাত্রীদের ভোগান্তি না কমে আরো বাড়ছে। নব্যতা ফিরিয়ে আনা, এপ্রোচ সড়ক তৈরিসহ সকল কাজ দ্রুত সম্পন্ন করে ফেরি চলাচল করার দাবী জানান যাত্রীরা।
রাজবাড়ী সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী খাইরুল বাশার মোহাম্মদ সাদ্দাম হোসেন জানান, জৌকুড়া ফেরি ঘাটটি রাজবাড়ীকে পাবনার সাথে সম্পৃক্ত করছে এবং এ ঘাট সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের নিয়ন্ত্রণে পরিচালিত হয়। ঘাটটি সচল করতে সর্বাত্মক চেষ্টা করা হচ্ছে। আগামী ৯ ফেব্রুয়ারী থেকে পুনরায় এরুট দিয়ে ফেরি চলাচল শুরু হবে বলে তিনি আশাবাদী।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design by: JIT Solution