1. jitsolution24@gmail.com : Rajbaribd desk : Rajbaribd desk
বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৪২ পূর্বাহ্ন
Title :
রাজবাড়ীর শিক্ষার্থীদের মাঝে গাছের চারা বিতরণ ‘দূস্কৃতিকারী যারাই হোক ছাড় দেওয়া হবে না’ -জিল্লুল হাকিম এমপি সারাদেশে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে রাজবাড়ীতে যুবলীগের বিক্ষোভ কথা রাখছে না বিদ্যুত বিভাগ গোয়ালন্দে ৩৫০০ দূর্বল শিক্ষার্থীর জন্য বিশেষ ক্যাচ-আপ ক্লাবের যাত্রা শুরু বঙ্গবন্ধু ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর এখন রাজবাড়ীতে, দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভির রাজবাড়ীতে ৫১ জন দুস্থ ও তৃতীয় লিঙ্গের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ খালেদা জিয়ার জন্মবার্ষিকী ও রোগমুক্তি কামনায় রাজবাড়ীতে দোয়া মাহফিল গোয়ালন্দে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ২জন গ্রেপ্তার বালিয়াকান্দিতে স্কুলে শোক দিবসে বাজলো হিন্দি গান, তদন্ত কমিটি গঠন

বালিয়াকান্দিতে মোবাইল চুরির অপবাদে ২ স্কুল ছাত্রকে বেঁধে মারপিটের অভিযোগ

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
  • ৯২৮ Time View

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া বাজারে দুই স্কুল ছাত্রকে মোবাইল চুরির অপবাদ দিয়ে প্রকাশ্যে রশি দিয়ে বেঁধে নির্মম ভাবে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার বিকালে।
মারপিটে আহত হয়েছে উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের বিলধামু গ্রামের ফরিদ মোল্যার ছেলে ও বিলধামু আবুল কাসেম মন্ডল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর ছাত্র বিজয় মোল্যা (১১) ও তার সহযোগী একই গ্রামের সাদেক আলীর ছেলে ও মধুপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণীর ছাত্র আসিক (৭)।
বিলধামু গ্রামের বাবু মোল্যা জানান, সাবেক সেনা সদস্য জুলফিকার শেখ ফোন দেয় আছরের আযানের পর আমাদের গ্রামের দুটি ছেলেকে আটকে রেখে আমাকে খবর দেয়। পরে আমি তাদের দু,জনকে নিয়ে এসে বাড়ীতে পাঠিয়ে দেই। আমার সামনে মারপিট করেনি। তারা বলে ফোন চুরি করেছে। পরে সকলের উপস্থিতিতে আমার কাছে ওই দু,টি ছেলে বুঝে দেয়।
মারপিটের শিকার পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র বিজয় মোল্যা জানায়, নারুয়া গ্রামের সুমনের কাছে তাদের একটি ফোন মেরামত করতে দেয়। শুক্রবার সকালে ফোনটি দেওয়ার কথা ছিল। সকালে দোকানে গিয়ে তাকে না পেয়ে তার বাড়ীতে যাই। বাড়ীতে না থাকায় তার বাবা জুলফিকার শেখের নিকট বললে সে বলে পরে আসো। বাড়ী ফেরার পথে একটি ফোন পড়ে পাই। বিষয়টি সকলকে জানাই একটি মোবাইল পথে পেয়েছি। বিকালে ওই দোকানে ফোন আনতে গেলে সুমন ও জুলফিকার আমাদের দু,জনকে দড়ি দিয়ে বেঁধে রেখে মারপিট শুরু করে। চিৎকার করলে বলে, একটি কথাও বলবি না। তোরা ফোন চুরি করলি ক্যান। মারপিটে বাধ্য হয়ে ফোন চুরি করেছি বলে স্বীকার করি।
বিজয়ের বাবা ফরিদ মোল্যা জানান, ছেলেকে মারপিটের কথা শুনে এসে দেখি ছেলের শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাথারী ভাবে মারপিট করেছে। তাকে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক শরীফুল ইসলামের নিকট থেকে চিকিৎসা গ্রহন করা হয়েছে। আমি এ মিথ্যা অপবাদ দিয়ে শিশু নির্যাতনকারীর বিচার দাবী করছি।
অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য জুলফিকার শেখ জানান, মোবাইল চুরি সন্দেহে তাদেরকে আটক করি। তাদেরকে দু,টি বারী মারার পর মোবাইল চুরির কথা স্বীকার করে। ফোনও দিয়েছে।

 




Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design by: JIT Solution