1. jitsolution24@gmail.com : Rajbaribd desk : Rajbaribd desk
সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২, ১০:৩৯ পূর্বাহ্ন

রাজবাড়ীতে ৮’শ শিশুর বাসযোগ্য সেইভ হোম করা হবে -জেলা প্রশাসক

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
  • ৩৫৪ Time View

মেহেদী হাসান ॥
রাজবাড়ীতে ৮’শ ছিন্নমূল ও পথ শিশুর জন্য বাসযোগ্য একটি সেইভ হোম করা হবে। এ ব্যপারে উদ্যেগ গ্রহন করা হয়েছে। যার অংশ হিসেবে এরই মধ্যে মন্ত্রনালয়ে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে।
বুধবার সকালে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে ন্যাশনাল চিলড্রেন টাস্কফোর্স (এনসিটিএফ) এর আয়োজনে শিশু অধিকার বাস্তবায়ন সম্পর্কিত জবাবদিহিতা বিষয়ক অধিবেশনের প্রধান অতিথির বক্তৃতায় রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক মোঃ শওকত আলী এ কথা বলেন।
জেলা প্রশাসক আরো জানান, রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া এলাকায় দেশের সবচেয়ে বড় একটি পল্লী রয়েছে। এখানকার শিশুরা মারাত্বক অবহেলিত। ওই অবহেলিত শিশুদের জন্য এতদিন এনজিও কেকেএস এর সহযোগিতায় কাজ করেছে সেইভ দ্যা চিলড্রেন। তাদের প্রকল্পটিরও মেয়াদ শেষ হতে যাচ্ছে। তাই সরকারীভাবে কোন ব্যবস্থা না করা পর্যন্ত তারা যাতে কাজ করে সে ব্যপারে অনুরোধ করা হয়েছে।
মাদকের ব্যপারে জেলা প্রশাসক বলেন, একটি এলাকার ভৌগলিক অবস্থার উপর বিবেচনা করে ওই এলাকার পরিবেশ গড়ে উঠে। দৌলতদিয়া এলাকাটি মাদকের জন্য একটি চিন্থিত স্থান। সম্প্রতি শোনা যাচ্ছে শিশুরাও মাদক সেবন ও বহন করছে। তাই ওই শিশুদের সেইভ হোমের আওতায় নিয়ে আসতে হবে।
এ সময় ন্যাশনাল চিলড্রেন টাস্কফোর্স (এনসিটিএফ) গোয়ালন্দ উপজেলার সভাপতি ফারহান আহম্মেদ ইয়াছিনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন, রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি পিপিএম, বিপিএম সেবা, এনজিও কেকেএস এর নির্বাহী পরিচালক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকির আব্দুল জব্বার, জেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা রুবাইয়াত মোঃ ফেরদৌস, ডাঃ আবুল হোসেন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ এবিএম মঞ্জুরুল আলম দুলাল, প্রভাষক শামীমা আক্তার মুনমুন প্রমুখ।
সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি বলেন, উন্নত দেশে এই পেশার মানুষগুলোকে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা দেওয়া হয়। তাদের বাসস্থান, চিকিৎসা,সব ব্যবস্থা করে সরকার। আমাদের দেশেও এমটিই হওয়া প্রয়োজন। পুলিশ সুপার হিসেবে নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে আমি নিজে ওই এলাকা পরিদর্শন করেছি। দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর মুল সমস্যা হলো পুরো এলাকাটি অরক্ষিত, চারপাশ খোলা, অনেকগগুলো প্রবেশ পথ রয়েছে। একটি বাউন্ডারি ওয়াল তৈরি করে একটি গেইট ব্যবহার করা গেলে আমরা গেটে পুলিশ দিয়ে নিরাপত্তা দিতে পারতাম। তারপরও বিষয়টি নজরে রাখা হয়েছে।
ঝুকির মধ্যে থাকা দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর শিশুরা বিভিন্ন প্রশ্ন করে ও অতিথিরা উত্তর দেয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design by: JIT Solution