1. jitsolution24@gmail.com : Rajbaribd desk : Rajbaribd desk
শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৭:৩৫ পূর্বাহ্ন
Title :
মরহুম কাজী হেদায়েত হোসেনের ৪৭ তম শাহাদাত বার্ষিকী পালন রাজবাড়ীতে প্রকাশ্যে ছাত্রলীগ নেতাকে লক্ষ্য করে গুলি ও যুবককে কুপিয়ে জখম রাজবাড়ীর শিক্ষার্থীদের মাঝে গাছের চারা বিতরণ ‘দূস্কৃতিকারী যারাই হোক ছাড় দেওয়া হবে না’ -জিল্লুল হাকিম এমপি সারাদেশে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে রাজবাড়ীতে যুবলীগের বিক্ষোভ কথা রাখছে না বিদ্যুত বিভাগ গোয়ালন্দে ৩৫০০ দূর্বল শিক্ষার্থীর জন্য বিশেষ ক্যাচ-আপ ক্লাবের যাত্রা শুরু বঙ্গবন্ধু ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর এখন রাজবাড়ীতে, দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভির রাজবাড়ীতে ৫১ জন দুস্থ ও তৃতীয় লিঙ্গের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ খালেদা জিয়ার জন্মবার্ষিকী ও রোগমুক্তি কামনায় রাজবাড়ীতে দোয়া মাহফিল

দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে অবাধ বিচরন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ২ মার্চ, ২০১৯
  • ১২১৫ Time View
সংগৃহীত ছবি
আজু শিকদার, সম্পাদক, রাজবাড়ীবিডি.কম ॥

দেশের সর্ববৃহৎ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে বড়দের পাশাপাশি বিচরন আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে স্কুল-কলেজগামী কিশোর-যুবকদের। এতেকরে তারা অনৈতিক কর্মকান্ডের পাশাপাশি আসক্ত হয়ে পড়ছে বিভিন্ন মাদকে।
গতকাল বৃহস্পতিবার গোয়ালন্দ ঘাট থানায় রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি স্থানীয় সূধীজন ও সরকারী কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময়ে এ বিষয়টি উঠে আসে। মতবিনিময়ে গোয়ালন্দের সহকারী কমিশনার (ভুমি) মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন হতাশা প্রকাশ করে বলেন, আমাদের আগামী প্রজন্ম কোথায় গিয়ে দাঁড়াচ্ছে। দৌলতদিয়া যৌনপল্লী থেকে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালত করে যাদের শাস্তি দিচ্ছি, তাদের শিক্ষাঙ্গনে থাকার কথা। অথচ তারা আটক হচ্ছে যৌনপল্লী থেকে। আমাদের আগামী প্রজন্মকে সঠিক দিক নির্দেশনা ও অভিভাবকরা সচেতন না হলে এ অঞ্চলের কিশোর-যুবকদের অনেকেই অন্ধকার জীবনে ঢুকে পড়বে। এসকল কিশোরদের এ ধরনের কাজ থেকে বিরত করতে না পারলে আগামী প্রজন্মের ভবিষ্যতে কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে তা আমরা কল্পনাও করতে পারছি না। সম্প্রতি যৌনপল্লী থেকে বেশ কিছু কিশোরকে ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করা হয়েছে। এ বিষয়টি আমাকে হতাশ করেছে। এখানে সংশ্লিষ্টদের আগামী প্রজন্মকে রক্ষায় বিশেষ ভাবে কাজ করতে হবে। এসময় গোয়ালন্দ পৌরসভার মেয়র শেখ মো. নিজাম, গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি এজাজ শফী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
গত মঙ্গলবার দৌলতদিয়া যৌনপল্লী থেকে ধারালো চাকুসহ আটক করা হয় দুই কলেজছাত্রকে। পরে তাদেরকে ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করা হলে আদালত দু’জনকে মোট ৮ হাজার টাকা আর্থিক দন্ডের আদেশ দেয়। ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আলম মামুন এসময় তিনি দন্ডপ্রাপ্তদের পরিচয় প্রকাশ না করার অনুরোধ করেন।
দৌলতদিয়া যৌনপল্লী সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্রের সাথে কথা বলে জানা যায়, যৌনপল্লীতে আগতদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য একটি অংশ কিশোর-যুবক। যাদের বয়স ১৫ থেকে ২০ বছর। স্থানীয় স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীসহ রাজবাড়ী, ফরিদপুর, মানিকগঞ্জ জেলা থেকে কিশোর-যুবকরা দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে আসে। এছাড়াও দেশের বিভিন্ন জেলা থেকেও এই বয়সের কিশোররা দল বেঁধে পল্লীতে এসে থাকে। আর এখানে আগতরা বিভিন্ন ধরনের মাদকের নেশাগ্রস্থ হওয়া ছাড়াও মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে।
অপরদিকে যৌনপল্লীতে জন্ম নেয়া বেশির ভাগ কিশোর-যুবকরা বর্তমানে মাদকাশক্ত হয়ে পড়েছে। এরা চুরি, ছিনতাই, নারীপাচারসহ বিভিন্ন অপরাধের সাথে জড়িয়ে পড়ছে। বাইরের প্রভাবশালী মাদক ব্যবসায়ী ও নারী পাচারকারীরা তাদেরকে এ ব্যবসায় নামিয়ে দিয়ে নিজেরা ফায়দা লুটছে।
গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম জানান, সম্প্রতি দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে একাধিক ধারালো চাকু দিয়ে গলা কেটে খুনের ঘটনায় এখানে আগতদের দেহ তল্লাশী করা হচ্ছে। গত মঙ্গলবার এরই অংশ হিসেবে ওই দুই যুবকের দেহ তল্লাশী করে ধারালো চাকু উদ্ধার করা হয়। পরে তাদেরকে ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করা হলে আদালত একজনকে ৫ হাজার টাকা ও অপরজনকে ৩ হাজার টাকা অর্থদন্ডের আদেশ দেয়।
যৌনপল্লীর শিশুদের নিয়ে কাজ করা বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা কেকেএস’র কর্মকর্তা আমজাদ হোসেন জানান, যৌনপল্লী ও বাইরের কিশোর যুবকরা সঠিক গাইডলাইন ও সুস্থ পরিবেশের অভাবে মাদকাসক্ত, ব্যবসাসহ নানা অপরাধে জেিড়য়ে যাচ্ছে। তাদের ভবিষ্যত নিয়ে সবাইকে ভাবতে হবে। শুধু আইন প্রয়োগ করে ওদের ভাল পথে আনা যাবে না। আর সেটা না পারলে এক সময় তারা গোটা সমাজের বোঝা হয়ে দাঁড়াবে।
এ প্রসঙ্গে রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি, পিপিএম বলেন, আমাদের আইনে যৌনপল্লী সম্পর্কে কোন নীতিমালা নেই। তারপরও চলছে। যৌনপল্লীতে বর্তমানে পুলিশের বিশেষ নজরদারি চলছে। কিশোর বা স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের যৌনপল্লী এলাকায় দেখা গেলে তাদের আটক করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন, কিশোরদের যৌনপল্লীতে অবাধ বিচরণ নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশের পাশাপাশি স্থানীয় সচেতন মহল সর্বোপরি অভিভাবকদের বিশেষ সচেতন হতে হবে।

 




Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design by: JIT Solution